রাত ১০টা ৫৫মি, ৮ অক্টোবর, এটিএন বাংলা

সঙ্গীতানুষ্ঠান: চিরকাল চিরদিন

উপস্থাপনা- সুবীর নন্দী
পরিচালনা-মুকাদ্দেম বাবু
অংশগ্রহনে: শাকিলা জাফর, সুবীর নন্দী, সুজিত মোস্তফা, ওয়াহিদ এবং মৃদুলা সমাদ্দার


এ দেশের গানের ভুবনকে নিরীক্ষা, সৃজনশৈলী সুর ও বাণীর সমৃদ্ব ফলনে পঞ্চাশ দশক থেকে যারা ধনী করে রেখেছিলেন, তাদেরই একজন আনোয়ার উদ্দিন খান। স্বনামধন্য কবি-গীতিকার আবুহেনা মোস্তফা কামাল ও আনোয়ার উদ্দিন খানের যুগলবন্দীতে একটা সময় এদেশের নানা মেজাজের নানা আদলের বাংলা গান পশ্চিমবঙ্গের গানের সাথে পাল্লা দিয়ে চলতে পেরেছিল। আবু হেনা গানের কথা লিখতেন আর আনোয়ার উদ্দিন সেটাতে সুর তৈরী করে শ্রোতার কানে পৌছে দিতেন। বেতার, টেলিভিশন, বেসিক ডিস্ক, ছায়াছবির জন্য সঙ্গীত পরিচালনা ,প্লে-ব্যাক সবক্ষেত্রেই ছিলেন সফল ও সুকৃতির অধিকারী। অন্যের লেখা গানে সুর করলেও আনোয়ার উদ্দিন খান নিজেও কিন্তু গীতিকার হিসেবে কম ছিলেন না। তার লেখা ও সুরে 'লোকে বলে প্রেম আর আমি বলি জ্বালা' 'পুরাতন মনটাতে আর সয়না কোন নতুন জ্বালাতন" 'কচি পাতার টিয়া রং' কিংবা "জড়োয়া অলংকারে" গানগুলো যেন একেকটা অনন্য সৃষ্টি। ১৯৩৫ সালের ৪ জুন রাজবাড়ী জেলায় জন্মগ্রহন করেন তিনি। তাঁর প্রথম কন্ঠদান করা ছায়াছবি হলো ‘অপরাজিতা’। তিনি ছায়াছবির গান গাওয়ার পাশাপাশি বাল্যবন্ধু ও মায়ার সংসার সিনেমায় সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন।

আনোয়ার উদ্দিন খান, একাধারে কন্ঠ শিল্পী,গীতিকার,সুরকার এবং সঙ্গীত পরিচালক। এদেশের পণ্যের বিজ্ঞাপনকে জনপ্রিয় করতে যে জিঙ্গেল ব্যবহার করা হয় তার পথিকৃত আনোয়ার উদ্দিন খান। আনোয়ার উদ্দিন খানকে বলা হয় আধুনিক গানের পুরোধা। তাঁর লেখা, সুরকরা ও গাওয়া গান নিয়ে এটিএন বাংলায় আজ রাত ১০টা ৫৮মিনিটে প্রচার হবে বৈঠকী গানের অনুষ্ঠান ‘চিরকাল চিরদিন’। অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন শাকিলা জাফর, সুজিত মোস্তফা, মৃদুলা সমাদ্দার ও ওয়াহিদ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনার পাশাপশি এ অনুষ্ঠানে গানও গাইবেন শিল্পী সুবীর নন্দী।

অনুষ্ঠানের গানগুলো হলো-পথে যেতে দেখি আমি যারে, একটি রূপালী চাঁদ, সব কিছু মোর উজার করে, কোকিল যখন ডাকে, সেলাম সেলাম শহরবাসী, কথা দিলাম আজকে রাতে, মায়া ভরা এক রাজ কন্যা, তোমরা যাদের মানুষ বলোনা, লোকে বলে প্রেম আমি বলি জ্বালা এবং লজ্জা আমার সোনার খাঁচায়। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেছেন মুকাদ্দেম বাবু।

৮ অক্টোবর ২০১৫

টেলিভিশন

 >  Last ›